শুক্রবার | ২৪শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১৭ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি | সকাল ১০:৩৬
Home / আন্তর্জাতিক / বাবার খুনিদের ক্ষমা করে দিলেন ছেলেরা

বাবার খুনিদের ক্ষমা করে দিলেন ছেলেরা

পর্দার আড়ালে ২৪.কম নিউজ ডেস্ক!!
মার্কিন দৈনিক ওয়াশিংটন পোস্ট এর নিবন্ধলেখক জামাল খাসোগির পাঁচ ঘাতককে ক্ষমা করে দিলেন তার পুত্ররা।

সৌদি আরবের রাজ আদালত পাঁচ ঘাতকেরই মৃত্যুদণ্ড দিয়েছিল। তবে খাসোগির পুত্রদের এই ক্ষমা প্রদর্শনকে মেনে নিতে পারেননি খাসোগির তুর্কি প্রেমিকা হ্যাটিস সেনজিগ। তিনি বলেছেন, ওর ঘাতকদের কখনওই ক্ষমা করা যায় না, উচিতই নয়।

জামালের এক পুত্র সালা খাসোগি শুক্রবার (২২) মে টুইট করে জানিয়েছেন, আল্লাহর দয়া পাবেন এই আশায় তার বাবার ঘাতকদের তারা ক্ষমা করে দিলেন।

ঘাতকরা সকলেই সৌদি আরবের নাগরিক। এই ক্ষমা প্রদর্শনের ফলে, কিছুটা স্বস্তি ফিরল সৌদি সরকার ও রাজপরিবারে।

জোরালো অভিযোগ উঠেছিল, মার্কিন দৈনিকের বিশিষ্ট নিবন্ধলেখক জামাল খাসোগিকে পাঁচ আততায়ী খুন করেছিল সৌদি সরকারের মদতেই। এর পিছনে ছিলেন সৌদি যুবরাজও। কারণ, ওয়াশিংটন পোস্টে তার একের পর এক নিবন্ধে সৌদির যুবরাজ ও রাজপরিবারের বিরুদ্ধে তোপ দেখিয়েছিলেন খাসোগি।
প্রাণের ভয়ে তাকে এক বছর নির্বাসনেও থাকতে হয়েছিল।

টুইটারে এ দিন সালা লিখেছেন, আমরা শহীদ জামাল খাসোগির পুত্ররা ঘোষণা করছি, আল্লাহর দয়া পাব এই আশায় আমরা বাবার ঘাতকদের ক্ষমা করে দিলাম।

২০১৭ সালের শেষের দিকে ইস্তানবুলে সৌদি দূতাবাসের ভিতরেই খুন হয়েছিলেন মার্কিন দৈনিকের বিশিষ্ট নিবন্ধলেখক জামাল খাসোগি। কিন্তু তারদেহ খুঁজে পাওয়া যায়নি।

খাসোগির এক পুত্র সালা এখন থাকেন সৌদি আরবে। ওই খুনের ঘটনার জন্য ইতিমধ্যেই সৌদি আরবের রাজ আদালত থেকে মোটা অঙ্কের আর্থিক ক্ষতিপূরণ পেয়েছেন সালা ও জামাল খাসোগির অন্য পুত্ররা।

সালা জানিয়েছেন, ইসলামের ঐতিহ্য মেনে তারা পবিত্র রমজানের মাসের শেষ রাতেই তার বাবার ঘাতকদের ক্ষমা করার সিদ্ধান্ত ঘোষণা করলেন।
যদিও এই ক্ষমা প্রদর্শনের নিন্দা করেছেন খাসোগির তুর্কি প্রেমিকা হ্যাটিস সেনজিগ। তার কথায়, খাসোগি খুনের নৃশংস ঘটনাকে কখনওই ক্ষমা করা যায় না।

আদালতে শুনানির সময় সৌদি সরকারের পক্ষ থেকে বারবার বলা হয়েছে, জামাল খাসোগির খুনের ঘটনাটি পূর্ব পরিকল্পিত নয়। এর পিছনে সরকারের কোনও মদতও ছিল না। কিছুই জানতেন না জানতেন না সৌদি যুবরাজ।

আন্তর্জাতিক মহল অবশ্য তা মানতে চায়নি কোনও দিনই। মার্কিন গোয়েন্দাদের রিপোর্ট ছিল, যে ভাবে পরিকল্পনামাফিক ইস্তানবুলে সৌদি দূতাবাসের ভিতরে খাসোগিকে খুন করা হয়েছিল এবং তার দেহ আড়াল করা হয়েছিল, তা সৌদি যুবরাজের অজ্ঞাতসারে হতেই পারে না। এর ফলে, খাসোগি খুনের ঘটনা নিয়ে রীতিমতো অস্বস্তিতে ছিল সৌদি সরকার, রাজপরিবার।

তবে এই ক্ষমা প্রদর্শনকে সার্বিক বলে মানতে নারাজ সৌদি দৈনিক আরব নিউজ।

দৈনিকটি তাদের প্রতিবেদন জানিয়েছে, পাঁচ ঘাতকের যাতে মৃত্যুদণ্ড না হয়, শুধু সে ব্যাপারেই ক্ষমা প্রদর্শন করেছেন জামাল খাসোগির পুত্ররা। কিন্তু এর মানে এই নয় যে, খাসোগির ঘাতকদের কোনও শাস্তিই হবে না।

পোস্টটি শেয়ার করুন
Share

About admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

ব্লিনকেনকে উইঘুদের বন্দি শিবির ও নির্যাতন বন্ধের আহ্বান

সম্প্রতি জিনজিয়াংয়ে উইঘুদের প্রতি চীনের অমানবিক আচরণ ও গণহত্যা বলে স্বীকৃতি দিয়েছে ...